কিভাবে হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করবেন

আপনার ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে ফেলেছেন? চিন্তার কোন কারণ নেই, দেখুন কিভাবে অনলাইনে আবেদন করে হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করবেন।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য প্রথমে নিকটস্থ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করুন। এরপর জিডি কপি আপলোড করে অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন করুন। আবেদন অনুমোদন হলে অনলাইন থেকে আপনার আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন

Advertisement

আপনি যদি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র হারিয়ে ফেলেন তাহলে ঘরে বসেই মাত্র ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যেই আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি অনলাইনেই পেতে পারেন।

বিশ্বাস হচ্ছেনা? চলুন জেনে নেয়া যাক হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের নিয়ম ও অনলাইন আবেদনের ধাপে ধাপে প্রক্রিয়া।

Advertisement

হারানো আইডি কার্ড বের করার নিয়ম

হারানো আইডি কার্ড বের করার জন্য নিকটস্থ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে হবে। এরপর রিইস্যুর ফি পরিশোধ করে জিডি কপি আপলোড করে অনলাইনে ভোটাই আইডি রিইস্যুর আবেদন করুন। আবেদন অনুমোদন হওয়ার পর অনলাইন থেকে আইডি কার্ড বের করতে পারবেন।

হারানো NID অনলাইন কপি ডাউনলোড

NID সার্ভার কপি মাত্র 100 টাকায়

Advertisement

আপনি যদি ২০১৯ সালের পর জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেন এবং অনলাইনের মাধ্যমে আপনারা জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি ডাউনলোড করে থাকেন তাহলে আপনার ডিভাইসে থাকা NID PDF ফাইলটি পুনরায় প্রিন্ট করে জাতীয় পরিচয় পত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

নতুন ভোটার? দেখুন টোকেন দিয়ে আইডি কার্ড বের করার নিয়ম

যদি ডাউনলোড করা ফাইলটি খুজে না পান তাহলে পুনরায় NID Wing ওয়েবসাইটে ইউজার নেইম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে বিনা খরচে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

যারা ২০১৯ সালের পূর্বের ভোটার হয়েছেন অর্থাৎ যাদের পুরাতন ভোটার আইডি কার্ড, আপনি ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশন থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ড পেয়ে থাকেন তাহলে আপনি NID Wing থেকে NID PDF ডাউনলোড করতে পারবেন না।

Advertisement

এক্ষেত্রে পুনরায় জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে ২৩০ টাকা ফি দিয়ে রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে হবে।

আরও পড়ুন- জন্ম নিবন্ধন দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড বের করা

হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন

জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর জন্য নিকটস্থ থানায় করা জিডি (সাধারণ ডায়েরী) কপি সংযুক্ত করে রিইস্যু আবেদন করতে হবে। এজন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

ধাপ ১ঃ জিডির আবেদন করুন

আপনার নিকটস্থ থানায় একটি লিখিত জিডির আবেদন জমা দিতে হবে। এছাড়াও অনলাইনের মাধ্যমে জিডির আবেদন করতে পারবেন।

যথাযথভাবে জিডি গ্রহণ হলে, জিডি গ্রহণকারী পুলিশ অফিসারের নাম ও তার মোবাইল নাম্বার সংগ্রহ করে রাখুন। পরবর্তীতে অনলাইনে রিইস্যুর আবেদন করতে এগুলো প্রয়োজন হবে।

ধাপ ২ঃ জাতীয় পরিচয়পত্রের ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন

সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা শেষে নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয়পত্র সেবার (NID Wing) ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে।

যদি পূর্বে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করা থাকে তাহলে এনআইডি নম্বর ও পার্সওয়ার্ড দিয়ে লগ-ইন করুন। পাসওয়ার্ড হারিয়ে ফেললে বা ভুলে গেলে পুনরায় রিসেট করতে পারেন।

ধাপ ৩ঃ রিইস্যুর আবেদন করুন – হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন

রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদনকারীর ফেইস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হলে NID Wing ওয়েবসাইটে লগইন করতে পারবেন।

যদি পূর্ব থেকে রেজিস্ট্রেশন করা থাকে তাহলে এই লিংক থেকে NID Wing সম্পন্ন করুন।

লগইন সম্পূর্ণ হলে নিচের ছবির মত একটা পেইজ দেখাবে এখান থেকে রিইস্যু বাটনে ক্লিক করুন।

হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন

রিইস্যু অপশনে যাওয়ার পর একটি জাতীয় পরিচয় পত্র রিইস্যুর আবেদন ফরম পাবেন। এই ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করে সাবমিট করুন।

হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন ফরম

ফরমে লাল বক্সে দেখানো অংশে জিডির তথ্য পূরণ করুন এবং পুনরায় তথ্যগুলো যাচাই করে উপরের ডান পাশ থেকে “পরবর্তী” বাটনে ক্লিক করুন।

হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের অনলাইন আবেদন

এরপরে রিইস্যুর আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে। জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন ফি হলো – সাধারণ ৩৪৫ টাকা ভ্যাট সহ এবং জরুরী ৫৭৫ টাকা ভ্যাট সহ। বিকাশ ও রকেটের মাধ্যমে রিইস্যু আবেদন ফি পরিশোধ করতে পারবেন।

ফি প্রদান শেষে আবেদনের ধরণ সিলেক্ট করতে হবে। এখান থেকে আবেদনের ধরন রিইস্যু ও বিতরণের ধরন Regular বা Urgent সিলেক্ট করে দিন। এখান থেকে রেগুলার সিলেক্ট করলে রেগুলার আবেদন ফি পরিশোধ করুন এবং জরুরী সিলেক্ট করলে জরুরি আবেদন ফি পরিশোধ করুন।

এরপর উপরের ডান কর্নারে থাকা “পরবর্তী” বাটনে ক্লিক করে আপনার জিডির স্ক্যান কপি আপলোড করুন। অবশ্যই ছবিগুলো পরিপূর্ণ আলো এবং সুন্দর ব্যাকগ্রাউন্ডে তুলতে হবে।

হারানো জাতীয় পরিচয়পত্রের জিডির কপি আপলোড করে আপনার আবেদটি সাবমিট করুন। আশা করি ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে আবেদনটি অনুমোদিত (Approved) করা হবে।

ধাপ ৪ঃ জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করুন

হারানো জাতীয় পরিচয় পত্রের আবেদনটি অনুমোদিত হলেই NID Wing ওয়েবসাইটে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

আবেদন Approve হবার পরে আপনার মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। যতদ্রুত সম্ভব NID Wing ওয়েবসাইট থেকে জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করে নিবেন। নির্দিষ্ট সময় শেষে ডাউনলোড করতে পারবেন না। পুনরায় আপনাকে নির্বাচন কমিশন অফিস থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করতে হতে পারে।

হারানো ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্নসমূহ

ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে কি করব?

ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে নিকটস্থ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে ভোটার আইডি কার্ড রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে হবে।

জাতীয় পরিচয় পত্র হারিয়ে গেলে কিভাবে উঠাতে হয়?

আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে, প্রথমে নিকটস্থ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে হবে। এরপর জিডি কপি আপলোড করে অনলাইনে রিইস্যুর আবেদন করতে হবে। আবেদন অনুমোদন হওয়ার পরে অনলাইন থেকেই জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

হারানো আইডি কার্ড কিভাবে পাবো?

হারানো আইডি কার্ড পাওয়ার জন্য থানায় আইডি কার্ড হারানোর জিডি করুন। এরপর জিডির তথ্য দিয়ে এবং জিডির কপি আপলোড করে অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর আবেদন করুন।

ডাউনলোডNID কার্ড ডাউনলোড
সংশোধনজাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন
চেকজাতীয় পরিচয় পত্র চেক
হোমপেইজNID BD
Advertisement

Similar Posts

One Comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।